দক্ষিণ-পশ্চিমের দুই নৌরুটে ঢাকামুখী মানুষের চাপ

Img
ফাইল ছবি

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে সরকার ঘোষিত লকডাউন শিথিল করায় ঈদের আগে গত শুক্রবার রাজধানী থেকে মানুষের ঢল নামে ঘরমুখী মানুষের। দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের দুই প্রধান নৌরুট শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী ও দৌলতদিয়া-পাটুরিয়ায় চালু হয় ফেরি সার্ভিস।

এর পাঁচ দিনের মাথায় ঈদের পর বুধবার (২৭ মে) জীবিকার তাগিদে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল থেকে পুনরায় ঢাকায়  ফিরতে শুরু করেছে কর্মজীবী  মানুষ।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন করপোরেশনের (বিআইডাব্লিউটিসি) আরিচা সেক্টরের ডিজিএম জিল্লুর রহমান বলেন, বুধবার সকাল থেকে দৌলতদিয়া ফেরিঘাট থেকে পাটুরিয়া ঘাটে ব্যক্তিগত ছোট গাড়ি ও যাত্রীরা ফেরি যোগে আসছে। 

তিনি বলেন, সকাল থেকে দৌলতদিয়া পয়েন্ট থেকে ব্যক্তিগত ছোট গাড়ি ও যাত্রীরা নদী পার হয়ে পাটুরিয়া ঘাটে আসছে। এখন ১৫টি ফেরির মধ্যে ৯টি ফেরি দিয়ে নৌ-পথ পারের কাজে নিয়োজিত। যানবাহনের চাপ বাড়লে ফেরির সংখ্যা আরো বাড়ানো হবে বলেও জানান তিনি।

অন্যদিকে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটেও স্বাভাবিক রয়েছে ফেরি চলাচল। ফেরিগুলোতে ব্যক্তিগত পরিবহন, কাঁচামালবাহী ও পণ্যবাহী ট্রাক এবং সাধারণ যাত্রীদের পারাপার করা হচ্ছে।

বিআইডাব্লিউটিসি কাঠালবাড়ি ঘাটের সহকারী ব্যবস্থাপক ভজন কুমার সাহা জানান, বেলা বাড়ার সাথে সাথে যাত্রীদের চাপ বাড়ছে। নৌরুটে স্পিডবোট ও লঞ্চ বন্ধ রয়েছে। এ কারণে ফেরিতে যাত্রীদের চাপ বাড়ছে। বর্তমানে আটটি ফেরি সকাল থেকে চলাচল করছে। তবে ঝড়ের কারণে সকালে এক ঘণ্টা বন্ধ ছিল। 

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার