নেশা কারবারিদের নিরাপদ করিডোর হয়ে উঠছে ত্রিপুরা। প্রতিদিন পুলিশ, বিএসএফ নেশা কারবারিদের বিরুদ্ধে অভিযান চালালেও দমছেনা নেশা কারবারিরা। প্রায় দিনই লক্ষ লক্ষ টাকার নেশাসামগ্রী আটক হচ্ছে।

গত কয়েকদিনে পুলিশ, বিএসএফ কয়েক কোটি টাকার নেশাসামগ্রী আটক করেছে। বিশেষ করে উত্তরত্রিপুরাজেলার পুলিশসুপার হিসেবে ভানুপদ চক্রবর্তী যোগ দেবার পর তিনি নেশা কারবারিদের মনে আতঙ্ক ধরিয়ে দিয়েছেন।

রাজ্য পুলিশ প্রশাসনের এই দক্ষ অফিসার ইতিমধ্যে কোটি কোটিটার নেশা সামগ্রী আটক করেছেন। নেশা কারবারিদের মনে ভানুপদ চক্রবর্তী এক আতঙ্ক নাম। এত অভিযানের পরও যদিও দমছেনা নেশা কারবারিরা।

পাশ্ববর্তী আসাম রাজ্যের নেশা কারবারিরা ত্রিপুরাকে করিডোর হিসেবে ব্যবহার করছে।

মঙ্গলবারও উত্তরত্রিপুরাজেলার পুলিশসুপার ভানুপদ চক্রবর্তী পানিসাগর এলাকার পেকুছড়া এলাকার জনৈক ফয়জুল ইসলামের বাড়িতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে আসাম রাজ্যের এক নেশা কারবারি তার ব্যবহৃত গাড়ি সহ দু'জনকে আটক করেছে সেইসাথে আট হাজার ইয়াবা ট্যাবলেট আটক করেছে।

যে দু'জনকে আটক করা হয়েছে তারা হলো বাড়ির মালিক ফয়জুল ইসলাম, আসামের শিলচরের আতাউর রহমান। এএস ১১ ০৩২৯নং একটি মারুতী ভ্যান জব্দ করা হয়েছে।