তিন দিন ছিল কানের ভেতর তেলাপোকা

Img
সংগৃহিত

গিয়েছিলেন সাঁতার কাটতে। তারপর থেকেই কানের মধ্যে বেজায় অস্বস্তি। ভেবেছিলেন, কানে পানি ঢুকেছে, দু-একদিনে সেরে যাবে। কিন্তু সেই অস্বস্তির কারণ যে তেলাপোকা ছিল তা কান থেকে বেরোনোর পর জানা গেল। কানের ভেতর ঢুকে তিন দিন ছিল এই তেলাপোকা। 

ভুক্তভোগী নিউজিল্যান্ডের জেন ওয়েডিং। কানের ভেতর অস্বস্তি হচ্ছে দেখে প্রথমে এক চিকিৎসকের কাছে যান ওই ব্যক্তি। যেহেতু সাঁতার কাটার কথাটা বলেছিলেন, সেহেতু ডাক্তার ভাবেন কানে পানিই ঢুকেছে। সেইমতো ওষুধপত্র দেন। কিন্তু না, তাতেও কিছু সুরাহা হয়নি। 

ওয়েডিং বরং এবার নতুন একটা জিনিস খেয়াল করলেন। কী যেন একটা কানের ভেতর থেকে থেকেই নড়ছে। ভয়ে তিনি এবার অন্য ডাক্তারের কাছে গেলেন। এই চিকিৎসকও ব্যাপারটা দেখে গোড়ায় বুঝতে পারেননি। প্রথমে ভেবেছিলেন, ওই ব্যক্তির কানে বুঝি টিউমার হয়েছে। তারপর কী সন্দেহ হয়, আর একবার পরীক্ষা করে দেখেন। তারপরই তিনি বুঝতে পারেন যে, কানের ভেতর কোনো একটা পতঙ্গ ঢুকে বসে আছে। 

তখন ভয় পেলেও, চমকের যেন আরও বাকি ছিল। ক্লিনিকে কানের ভেতর থেকে পতঙ্গটিকে বের করার উদ্যোগ নেওয়া হয়। একটু পরে দেখা যায়, ছোটখাট কিছু নয়, একটা তেলাপোকা ঢুকে পড়েছিল ওই ব্যক্তির কানে। তা শুনে প্রায় আঁতকে ওঠেন ওয়েডিং। চিকিৎসকরাও বিস্মিত। এরপর বিশেষ যন্ত্র ব্যবহার করে তার কান থেকে একটা মরা তেলাপোকা বের করে আনা হয়।

- সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান, এনডিটিভি
পূর্ববর্তী সংবাদ

রাসিক মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন করোনায় আক্রান্ত

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটনের শরীরে করোনার সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে।

শনিবার সকালে তিনি মুঠোফোনে করোনা পজিটিভ হওয়ার খবর পান। তবে শারীরিকভাবে সুস্থ রয়েছেন তিনি।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, মেয়র খায়রুজ্জামান ৯ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে ঢাকায় যান। ১১ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন। এর পর থেকে ঢাকায় আওয়ামী লীগের বিভিন্ন দলীয় কার্যক্রমে অংশ নিয়েছেন তিনি। একটি গুরুত্বপূর্ণ অনুষ্ঠানে অংশ নিতে গতকাল শুক্রবার তিনি করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা দিয়েছিলেন। শরীরে কোনো উপসর্গ না থাকলেও করোনা পজিটিভ আসে তার। বর্তমানে তিনি ঢাকায় নিজ বাসায় রয়েছেন। তিনি শারীরিকভাবে সুস্থ রয়েছেন।

রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আহসানুল হক বলেন, আজ সকালে মেয়র মুঠোফোনে করোনা পজিটিভ হওয়ার খবর পান। পরে তিনি বাসাতেই চিকিৎসা নিচ্ছেন। তিনি শারীরিকভাবে ভালো আছেন।

আহসানুল হক আরও বলেন, করোনার গত দুই বছরে মেয়র সিটি করপোরেশন এলাকায় ত্রাণ বিতরণ করেছেন। রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ বা সিটি করপোরেশনের কোনো কাজে বিঘ্ন ঘটতে দেননি তিনি। সব ধরনের উন্নয়ন কার্যক্রম তিনি তদারক করেছেন, মানুষের দ্বারে দ্বারে গিয়েছেন। ত্রাণসামগ্রী পাঠিয়ে দিয়েছেন সুবিধাভোগীদের ঘরে ঘরে। তিনি সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার