মিষ্টি কুমড়া ভর্তি পিকআপ ভ্যানে ঝিনাইদহ র‌্যাব-৬ অভিযান চালিয়ে ১১ কেজি গাঁজা ও ফেন্সিডিলসহ দু’জনকে আটক করেছে।

আটককৃতরা হলো- পিকআপ ভ্যানের ড্রাইভার মারুফ হোসেন ও হেলপার হাসমত মোল্লা। তবে এসময় পালিয়ে গেছে মাদক পাচারের মুল হোতা বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের নজরুল ও তার সহযোগী চুয়াডাঙ্গার শহিদুল।

মঙ্গলবার দুপুরে ঝিনাইদহ র‌্যাব-৬ এর প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে, সোমবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তারা জানতে পারে চুয়াডাঙ্গার আন্দুলবাড়ীয়া থেকে একটি মিষ্টি কুমড়া বোঝাই পিকআপ ভ্যানে বিপুল পরিমান মাদক পাচার করা হচ্ছে এবং পিকআপ ভ্যানটি ঝিনাইদহের উপর দিয়ে যাবে। এমন সংবাদ পেয়ে র‌্যাব-৬ ক্যাম্পের সামনের সড়কে চেক পোষ্ট বসায় ঝিনাইদহ র‌্যাবের কোম্পানী কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ মাসুদ আলম এবং স্কোয়াড কমান্ডার এইচ এম শফিকুর রহমান। পিকআপ ভ্যানটি ঝিনাইদহ বিসিক শিল্প নগরীর ১নং গেইটে পৌঁছালে ঝিনাইদহ র‌্যাব-৬ এর সদস্যরা থামানোর চেষ্টা করে। এ সময় পিকআপটি রাস্তার পাশে থামিয়ে ড্রাইভার ও হেলপার পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। র‌্যাব গাড়ির ড্রাইভার ও হোলপারকে আটক করতে পারলেও পালিয়ে যায় নজরুল এবং শহিদুল। পিকআপ তল্লাসী চালিয়ে ৩ লাখ ৩০ হাজার টাকা মুল্যের ১১ কেজি গাঁজা, এক লাখ ১৭ হাজার টাকা মুল্যের ১’শত ১৭ বোতল ফেন্সিডিল, ৫৪ বস্তা মিষ্টি কুমড়া, ৩টি মোবাইল সেট, ৩টি সীম কার্ড ও মাদক বিক্রি নগদ ৩ হাজার ৮১০ টাকা জব্দ করে।

এ ব্যাপারে গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে ঝিনাইদহ সদর থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন ২০১৮ এর ৩৬(১) সারণির ১৯(খ)/১৪(গ)/৪১ ধারায় মামলা করা হয়েছে।