জেদ্দায় ২৪ ঘন্টার কারফিউ ঘোষণা করা হয়েছে

Img

সৌদি আরবের জেদ্দায় নির্দিষ্ট কিছু এলাকায় ২৪ ঘন্টা ব্যাপি কারফিউ জারি করা হয়েছে! এই কারফিউ চলাকালীন সময়ে এই এলাকাগুলো লকডাউন এর নির্দেশ দেয়া হয়েছে, অর্থাৎ নির্দিষ্ট এসকল এলাকা থেকে যেকারো বের হওয়া বা প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

 আল মাহজার, আল গুলাইল, আল গারিয়াত ও পেট্রোমিন এলাকায় আজ ৪ই এপ্রিল, শনিবার থেকে ২৪ ঘন্টার কারফিউ জারি করা হয়েছে। করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকানোর জন্যই এই কারফিউ জারি করেছে সৌদি সরকার। পরবর্তী ঘোষণা না আসা পর্যন্ত এই কারফিউ জারি থাকবে।

উল্লেখিত এলাকাগুলোতে কারফিউ চলাকালীন সময়ে বিনা প্রয়োজনে বাড়ি থেকে বের হওয়া নিষিদ্ধ করা হয়েছে। তবে খাবার বা প্রয়োজনীয় সামগ্রী কেনার জন্য এলাকার ভেতরে সকাল ৬টা থেকে বিকেল ৩টার মধ্যে সাবধানতার সাথে বের হওয়া যাবে। এছাড়াও জরুরি চিকিৎসা প্রয়োজনে বের হওয়া যাবে বাসা থেকে। নিজেদের কাজের স্বার্থে কর্তৃপক্ষের অনুমতি সাপেক্ষে যারা এই কারফিউ এর আওতার বাইরে থেকে উল্লেখিত এলাকাগুলোতে চলাফেরা করবেন, তাদেরকেও মাস্ক এবং সঠিক সুরক্ষা নিয়ে নিয়ন্ত্রিতভাবে চলাফেরা করার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

উল্লেখিত এলাকাগুলো থেকে বের হতে পারবেন না কেউ, এবং বাইরে থেকে কেউ এসকল এলাকাতেও প্রবেশ করতে পারবেন না।

উল্লেখ্য যে, ইতিপূর্বেই সমগ্র সৌদি আরবজুড়ে বিশেষ কারফিউ ঘোষণা করে সৌদি সরকার। পরবর্তীতে গত ৩০ মার্চ থেকে মক্কার নির্দিষ্ট কিছু এলাকায় ২৪ ঘন্টা ব্যাপি কারফিউ জারি করা হয়। সৌদি আরবে করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতেই এসকল সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

এখন পর্যন্ত সৌদি আরবে ২১৭৯ জন মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন, এবং মারা গিয়েছেন ২৯ জন। সম্পূর্ন সুস্থ হয়ে বাড়িতে ফিরে গিয়েছেন ৪২০ জন রোগী।

পূর্ববর্তী সংবাদ

স্বেচ্ছায় লকডাউনে সাতকানিয়ার কয়েকটি গ্রাম

প্রাণঘাতি করোনাভাইরাস ঠেকাতে যার যার ঘরে থাকার আহবান জানিয়ে কাজ করে যখন হিমশিম খাচ্ছে প্রশাসন। তখন নিজেদের পাড়া নিজেরা ‘লকডাউন’ করতে শুরু করেছেন সাতকানিয়ার কয়েকটি পাড়ার মানুষ।

এমন ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছেন উপজেলার কেঁওচিয়া ইউনিয়নের মাদারবাড়ি ও চেয়ারম্যান পাড়াসহ কয়েকটি পাড়ার লোকজন। সেখানে গতকাল (০৪ এপ্রিল) পাড়ার প্রবেশ মুখ বন্ধ করে দিয়েছেন তারা।

সম্প্রতি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাচঁতে দেশব্যাপী যেখানে লকডাউনের ঘোষণা দেয়া হয়, ঠিক সে মুহূর্তে নিজেরা করোনা মহামারি থেকে বাঁচাতে নিজেদের পাড়াকেই লকডাউন করে দেন বাসিন্দারা। সরকার যেখানে মানুষকে বুঝিয়ে জোর করে ঘরে রাখতে পারছে না, সেখানে স্বেচ্ছায় পাড়ার মানুষ নিজেদের লকডাউন করার ঘটনা সত্যিই নজর কাড়ার মতো।

এ ব্যাপারে মাদারবাড়ির বাসিন্দা মাহফুজ জানান, বাইরের মানুষ যাতে পাড়ায় আসতে না পারে, ভেতরের মানুষও যাতে অপ্রয়োজনে বাইরে যেতে পারে সেজন্য প্রবেশ পথ বন্ধ করা হয়েছে।

চেয়ারম্যান পাড়ার বাসিন্দা সোহরাব জানান, পাড়ার সকলেই মিলে এ উদ্যোগ নিয়েছি, যাতে করোনাভাইরাস থেকে পাড়াবাসী রক্ষা পায়। যতদিন না পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হয়, ততদিন প্রবেশ পথ বন্ধ রাখা হবে।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার