জামালপুরে পাহারা বসিয়ে শিশুকে ধর্ষণ, ধর্ষক আটক

Img

জামালপুর সদর উপজেলায় সাত বছরের এক কন্যাশিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে ফরহাদ হোসেন (২৮) নামের এক যুবককে হাতেনাতে আটক করে গণধোলাই শেষে পুলিশে দিয়েছে গ্রামবাসী। 

বুধবার দুপুরে উপজেলার ঘোড়াধাপ ইউনিয়নের বন্দচিথলিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। 

গুরুতর অসুস্থ শিশুটিকে জামালপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আটক ফরহাদ স্থানীয় আব্দুল হামিদের ছেলে।

পুলিশ ও গ্রামবাসী সূত্রে জানা গেছে, সদর উপজেলার ঘোড়াধাপ ইউনিয়নের বন্দচিথলিয়া গ্রামের ফরহাদ বুধবার দুপুর আড়াইটার দিকে প্রতিবেশী এক শিশুকে ফুসলিয়ে রাস্তার পাশের বাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে। এ সময় শিশুটির চিৎকারে স্থানীয় কয়েকজন যুবক এগিয়ে গেলে ফরহাদ পালিয়ে যায়। ঘটনা জানাজানি হলে তাকে ধরার জন্য ঢাকা-জামালপুর সড়কের ঘোড়াধাপ বাজারসহ বিভিন্ন স্থানে ফোন করে পাহারা বসায় গ্রামবাসী।

বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে ধর্ষক ফরহাদ স্থানীয় ঘোড়াধাপ বাজারে ঢাকামুখী একটি যাত্রীবাহী বাসে উঠে পালানোর সময় সেখানে টহলরত দুজন পুলিশ ও স্থানীয়রা তাকে চিনে ফেলে। এ সময় সে বাস থেকে নেমে দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে ফরহাদ। পরে পুলিশ ও স্থানীয় গ্রামবাসী তাকে আটক করে। স্থানীয় নরুন্দি তদন্তকেন্দ্রের পুলিশ ফরহাদকে আটক করে জামালপুর সদর থানায় সোপর্দ করেছে। অপরদিকে শিশুটিকে উদ্ধার করে জামালপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করিয়েছে পুলিশ।

জামালপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রেজাউল ইসলাম খান  বলেন, ঘোড়াধাপে সাত বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে আটক ফরহাদকে আসামি করে থানায় মামলা দায়েরের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন। কাল বৃহস্পতিবার শিশুটির ডাক্তারি পরীক্ষা করানো হবে।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার