গোলমরিচের নানা গুণ

Img

গোলমরিচ একটি অতিপরিচিত জিনিস। গোলমরিচের রয়েছে নানা গুণ। অনেক খাবারেই গোলমরিচের ব্যবহার আছে। উপকারের দিক থেকে এর জুড়ি মেলা ভার। মিশকালো গোলমরিচের ওষুধি গুণ শরীরকে রোগমুক্ত রাখতে আর রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে। তাই করোনার এই সময়ে নানা উপকারে খেতে পারেন গোলমরিচ।

গোলমরিচের গুণাগুণ-

১. অতিরিক্ত ওজন তো আজকাল প্রায় অনেকেরই সমস্যা। শরীর থেকে বাড়তি ফ্যাট টেনে নিতে গরম পানিতে গোলমরিচ খুব উপকারী। ক্যালোরি পুড়িয়ে ওজন কমাতে সাহায্য করে গোলমরিচ।
২. ঠাণ্ডা লাগলে গরম দুধে গোলমরিচ কষ্ট থেকে উপশম দেয়। যাদের প্রায়ই ঠাণ্ডা লাগে বা ঘন ঘন হাঁচি হয়, তারা যদি কয়েকটা গোলমরিচ রোজ চিবিয়ে খেয়ে নেন, উপকার পাবেনই পাবেন। 
৩. কচি নিমপাতার সঙ্গে তিন-চারটি গোলমরিচ সকালে খালি পেটে চিবিয়ে খেলে সুগারও নিয়ন্ত্রণে থাকে।
৪. আপনার কি কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা আছে? সকালবেলা অনেকটা সময় যুদ্ধ করতে হয়? এক কাপ হালকা গরম পানিতে লেবুর রস আর গোলমরিচের গুঁড়ো মিশিয়ে টানা কয়েক দিন খেলে গ্যাস-এর সমস্যা কমে। কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয়।
৫. আপনার যদি ডিহাইড্রেশনের সমস্যা থাকে, আপনাকে মৃদু গরম পানির সঙ্গে গোলমরিচ খেতেই হবে। ফলে শরীরে ক্লান্তি জমতে পারে না। 
৬. ত্বককে মসৃণ রাখে গোলমরিচ।
৭. খুব হালকা গরম পানিতে গোলমরিচের গুঁড়া ফেলে একটু নেড়ে নিয়ে হালকা হালকা চুমুক দিয়ে খেলে শরীরে শক্তি ও কর্মক্ষমতা বাড়ে। কাজ করার এনার্জি পাওয়া যায়। শরীরে পানির মাত্রা কমতে পারে না। সকাল বেলা এটা যদি খেয়ে নেন, আপনি সারা দিন মুক্তি পাবেন অ্যাসিডিটির সমস্যা থেকে।

এতগুলো সুফল যখন আছেই, তখন আর দেরি না করে গোল গোল ছোট দানাগুলোকে সকাল থেকেই সঙ্গী করে
ফেলুন।
 

পূর্ববর্তী সংবাদ

আজ রাতে অস্ত্রোপচার হবে বিসিবি সভাপতির

যুক্তরাজ্যে একটি হাসপাতালে আজ রাতে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের অস্ত্রোপচার হবে। প্রোস্টেটের সমস‌্যার কারণে তার অস্ত্রোপচার করাতে হচ্ছে। বিসিবির পরিচালক ও মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, বোর্ড প্রধানের শারীরিক অবস্থা ভালো আছে। আজ বাংলাদেশ সময় রাতে তার অস্ত্রোপচার হবে। এমনিতে কোনো সমস্যা নেই।

মহামারি করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরুর পর থেকে বিসিবি সভাপতি দেশের ক্রিকেটার, সাধারণ মানুষ এবং ক্রিকেটের বাইরের অ‌্যাথলেটদের পাশে ছিলেন। গণমাধ‌্যমেও তার কম-বেশি উপস্থিতি ছিল। শেষবার ক্রিকেট নিয়ে কথা বলেছেন জাতীয় ক্রীড়া পরিষদে। সেদিন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেলের হাতে দেশের ২৩টি ফেডারেশনের অসহায় ক্রীড়াবিদদের জন্য ৫০ লাখ দশ হাজার টাকার চেক হস্তান্তর করেন নাজমুল হাসান।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার