গুজব ও উস্কানি দেয়ার অভিযোগে ২৮টি সাইটের বিরুদ্ধে মামলা

প্রবাসীরদিগন্ত ডেস্ক : অগাস্ট ৫, ২০১৮

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন পোস্ট দিয়ে গুজব ছড়ানো ও উস্কানি দেয়ার অভিযোগ এনে ২৮টি সাইটের বিরুদ্ধে মামলা করেছে পুলিশ। ঢাকা মহানগর পুলিশের সাইবার সিকিউরিটি এন্ড ক্রাইম বিভাগ বাদী হয়ে গত বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর রমনা থানায় এ মামলা দায়ের করে। মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ডিএমপির সাইবার সিকিউরিটি এন্ড ক্রাইম বিভাগের এডিসি  মোঃ নাজমুল ইসলাম।
মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, সড়ক দুর্ঘটনার প্রতিবাদে এবং সড়ক ব্যবস্থাপনার বিভিন্ন দাবিতে আন্দোলন করছে কোমলমতি ছাত্র-ছাত্রীরা। এই সুযোগে একটি স্বার্থান্বেষী চক্র ইন্টারনেটের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ফেসবুকে এবং টুইটারের ২৮টি আইডিতে মিথ্যা এবং বিভ্রান্তিমূলক পোস্ট ও তথ্য দিয়ে ছাত্র-ছাত্রীদের ভিন্ন পথে প্রবাহিত করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। এই পোস্ট ও তথ্যতে আন্দোলনরত ছাত্র-ছাত্রীদের মৃত্যুর গুজবসহ নানা বিভ্রান্তিমূলক তথ্য দিচ্ছে।
ফেসবুকের আইডিগুলো হচ্ছে, জুম বাংলা নিউজ পোর্টাল, বিএনপি সমর্থক গোষ্ঠী কেন্দ্রীয় সাংসদ, এ্যাক্সিডেন্ট নিউজ, বাঁশেরকেল্লা, ফাইট ফর সারভাইভার্স রাইট, আন্দোলন নিউজ  ও ফাঁকিবাজ লিংক।  আর টুইটারগুলো হলো হলো, নওরিন-০৭, দিপু খান বিএনপি, ইদ্রিস হোসেইন, বিপ্লবী কাজী ও নাসিফ ওয়াহিদ ফায়জালসহ ইত্যাদি। 
এ বিষয়ে ডিএমপির সাইবার সিকিউরিটি এন্ড ক্রাইম বিভাগের এডিসি মোঃ নাজমুল ইসলাম জানান, আন্দোলনকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য ফেসবুকে এবং টুইটারে একটি চক্র সক্রিয় রয়েছে। এমন চক্রের প্রায় ২৮টি আইডিকে আমরা চিহ্নিত করেছি। 
এদিকে নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মধ্যে  মোবাইল ইন্টারনেটের ফোর-জি ও থ্রি-জি সেবা ২৪ ঘণ্টার জন্য বন্ধ করে দিয়েছে সরকার। শনিবার সন্ধ্যায় এ নির্দেশ দেয় বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। এরপর সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে গ্রাহকেরা মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহারে ভোগান্তিতে পড়েন। পরবর্তীতে বিটিআরসি ও মোবাইল ফোন অপারেটরদের সঙ্গে কথা বলে ফোর-জি ও থ্রি-জি ইন্টারনেট সেবা বন্ধের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যায়।
জানতে চাইলে বিটিআরসির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জহুরুল হক বলেন, অনেক সময় সরকারের উচ্চপর্যায়ের সিদ্ধান্তে বিটিআরসির সংশ্লিষ্ট বিভাগকে অনেক নির্দেশনা বাস্তবায়ন করতে হয়। কিছু জায়গায় নেটওয়ার্কের কারণে মোবাইল ইন্টারনেট পেতে সমস্যা হতে পারে, সেটা পুরোপুরি বন্ধের মতো না।
অবশ্য মোবাইল ফোন অপারেটররা এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি। তবে মোবাইল ইন্টারনেট সেবার সঙ্গে যুক্ত একাধিক সূত্র থেকে ফোর-জি ও থ্রি-জি সেবা বন্ধের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে।
এর আগে পুলিশের পক্ষ থেকে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন সামাল দিতে ফোর-জি ও থ্রি-জি ইন্টারনেট সেবা বন্ধের সুপারিশ করা হয়। পুলিশের মতে, শিক্ষার্থীরা ফেসবুক ব্যবহার করে আন্দোলনের প্রচার চালাচ্ছে। ফোর-জি হচ্ছে ফোর্থ জেনারেশন বা চতুর্থ প্রজন্মের মোবাইল ফোন প্রযুক্তি। এর আগের প্রজন্মের প্রযুক্তি থ্রি-জি ও টু-জি। টু-জিতে ইন্টারনেটে ডেটা প্রবাহের গতি কম থাকে।

তথ্য:

বিভাগ:

প্রকাশ: অগাস্ট ৫, ২০১৮

পড়েছেন: 454 জন

মন্তব্য: 0 টি