গাড়িতে ধাক্কা লাগায় নছিমনচালককে আটক ইউএনওর

Img

ধাক্কা লেগে গাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় এক নছিমন চালককে তিন দিন ধরে অফিসে আটকে রাখার অভিযোগ উঠেছে ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিনের বিরুদ্ধে।

বৃহস্পতিবার সকালে সরেজমিনে চরফ্যাশন উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তার কার্যালয়ে গিয়ে দেখা যায়, নছিমন চালক আরিফকে একটি কক্ষে তালাবদ্ধ করে রাখা হয়েছে।

গণমাধ্যমকর্মীদের আরিফ জানান, সোমবার তিনি মাছ নিয়ে যাওয়ার সময় ভোলা সদরের বাংলা বাজার এলাকায় ইউএনওর গাড়ি ওভারটেক করতে গিয়ে নছিমনের সঙ্গে লেগে একাংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

তিনি জানান, এরপর তাকে সদর উপজেলার বাংলা বাজার এলাকা থেকে আটক করে চরফ্যাসন থানায় এক রাত রাখা হয়। পরদিন সেখান থেকে ইউএনও অফিসে নিয়ে আবার আটকে রাখা হয়।

আরিফ জানান, তার কাছ থেকে গাড়ি মেরামত বাবদ প্রায় চার লাখ টাকার তিন ভাগের এক ভাগ টাকা চাওয়া হয় । তিনি দিতে না পারায় অফিসের একটি কক্ষে আটকে রাখেন ইউএনও।

চরফ্যাসন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিন জানান, গাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় চালককে এনে থানায় দেয়া হয়। পরদিন তাকে ইউএনও অফিসে নেয়া হয়। চালকের কোনো স্বজন যোগাযোগ করেনি। তারা যোগাযোগ না করলে চালককে থানায় দেয়া হবে।

তিনি বলেন, ‘ক্ষতিপূরণ বাবদ কিছু টাকা দিলে তাকে ছেড়ে দেয়া হবে। মামলা দিলে উকিল ধরতে হবে, জরিমানা হবে সেই টাকা চালক দিতে পারত না। আমি চেয়েছিলাম মিনিমাম যা পারে তা দিলে তাকে ছেড়ে দেয়া হবে।’

ইউএনও বলেন, ‘কেউ না আসায় ছেড়ে দিতে পারেনি। আমি বলে দিয়েছি, তাকে থানায় সোর্পদ করা হবে। আইনগতভাবে আদালত যা ব্যবস্থা নেয়, সেটি আমরা মেনে নিব।’

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার