খুলনায় সূর্যের দেখা নেই, বেড়েছে শীতের প্রকোপ

Img

খুলনায় আজ শুক্রবার সকাল থেকে সূর্যের দেখা মেলেনি। আকাশ মেঘে আচ্ছন্ন। শীতের তীব্রতা কিছুটা বেড়েছে। প্রয়োজন ছাড়া মানুষ ঘরের বাইরে বের হচ্ছেন না। রাস্তাঘাটগুলো রয়েছে প্রায় ফাঁকা। দু এক স্থানে সকালে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হয়েছে।

এ অবস্থায় খেটে খাওয়া সাধারণ মানুষ বিপাকে পড়েছেন। রাস্তার মোড়ে মোড়ে রিক্সা ও ইজিবাইক চালকদের অলস সময় কাটাতে দেখা গেছে। গরম কাপড়ের দোকানগুলোতে ক্রেতাদের ভিড় বেড়েছে।

এদিকে, শীতের প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় খুলনার হাসপাতালগুলোতে শীতজনিত রোগীর সংখ্যা বেড়েছে। সর্দি, জ্বর, নিউমোনিয়া, ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে রোগীরা চিকিৎসা নিচ্ছেন। এদের মধ্যে শিশু ও বৃদ্ধের সংখ্যায় বেশি।
রাতে কুয়াশার আধিক্যের কারণে লঞ্চ ও দূরপাল্লার পরিবহল চলাচলে বিঘ্নের সৃষ্টি হচ্ছে। নির্ধারিত সময়ে ট্রেন ও বাস গন্তব্যে পৌছাতে পারছে না।

খুলনা আঞ্চলিক আবহাওয়া অফিসের সিনিয়র আবহাওয়া কর্মকর্তা আমিরুল আজাদ জানান, হাল্কা বৃষ্টিপাতের প্রবণতা আগামী দু তিনদিন থাকবে। রাতের তাপমাত্রা সামান্য কমতে পারে।

পূর্ববর্তী সংবাদ

এবার বিপিএলে দর্শক থাকবে কি?

নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রণ ছড়িয়ে পড়ায় বিশ্ব ব্যাপী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়েছে। এমনকি বাংলাদেশেও সংক্রমণের হার ক্রমশ বাড়ছে। পরিস্থিতি আমলে নিয়ে স্বাস্থ্যবিধি মানার সঙ্গে কিছু বিধিনিষেধও আরোপ করেছে সরকার। ইতোমধ্যে উন্মুক্ত স্থানে জনসমাগম, সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। পরিবহনে দুই সিটে এক যাত্রীর বেশি নেয়া যাবে না।

করোনা সংক্রমণের এই উর্ধ্বগতি বহাল থাকলেও বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) অষ্টম আসর আয়োজন নিয়ে শঙ্কিত নয় বিসিবি। যথাসময়ে টুর্নামেন্ট মাঠে গড়াবে বলেই আশা করছে বিসিবি। তবে টুর্নামেন্টে দর্শকের উপস্থিতি অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। এখনও চূড়ান্ত হয়নি আদৌ দর্শক থাকবে কিনা গ্যালারিতে।

যদিও একমাস আগেও বিপিএলে দর্শক ফেরানোর বিষয়ে আশাবাদী ছিল বিসিবি। গ্যালারির ধারণ ক্ষমতার অন্তত ৫০ ভাগ টিকিট বিক্রির চিন্তা করা হয়েছিল। করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় পরিস্থিতি বদলে যাচ্ছে।

বিপিএলে দর্শকের উপস্থিতি নিয়ে এখনও সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানিয়েছেন বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স বিভাগের চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস।

বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের তিনি বলেছেন, দর্শকদের প্রবেশ করানোর ব্যাপারে একটা শঙ্কা আছে। টুর্নামেন্ট হবে ইন শা আল্লাহ। কিন্তু দর্শক ভেতরে ঢোকানোর ক্ষেত্রে আমাদের চিন্তা করতে হচ্ছে। আদৌ আমরা দর্শক অনুমোদন দিতে পারবো কীনা এটা একটা প্রশ্ন।

উল্লেখ্য, বিপিএল শুরু হবে আগামী ২১ জানুয়ারি। শেষ হবে ১৮ ফেব্রুয়ারি। 

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার