খুলনার মাঠে মাঠে ধান কাটার উৎসব

Img

দিগন্তজোড়া প্রান্তরে সোনালি ঢেউ। হিম হিম মৃদু বাতাসে পাকা ধানের শীষের দোলা মাঠের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে। এর মাঝেই দেখা গেলো কাস্তে হাতে ব্যস্ত কৃষক।

মাঠের পর মাঠ এখন সোনালি রঙের পাকা ধানে ভরে আছে। যতদূর চোখ যায় হলুদ মাঠ। এই মাঠ এখন রিক্ত হতে শুরু করেছে। মাঠে মাঠে শুরু হয়েছে ধান কাটা উৎসব।
খুলনার বটিয়াঘাটার বয়ার ভাঙ্গা গ্রামের মাঠে মাঠে চলছে ধান কাটা। মাঠের পাকা ধান কেটে তুলতে হবে গোলায়। তাই ফসলের খেতে ধান কাটার ধুম পড়েছে। চারিদিকে পাকা ধানের মৌ মৌ গন্ধ।

দীপঙ্কর নামে এক কৃষক বলেন, আমাগে এহন দম ফেলার ফুরসত নেই। নতুন ধান ঘরে তুলতে ব্যস্ত সময় পার করতি হচ্ছে।

তিনি জানান, মাঠজুড়ে ধান কাটার মহোৎসব শুরু হয়েছে। কয়েক বছর ধরে গ্রামে আর ধান কাটার শ্রমিক পাওয়া যায় না। যে কারণে অনেক গৃহিণীরও মাঠে এসে ধান কাটতে হচ্ছে। তারপরও যা হয়েছে তার যেন ন্যায্যমূল্য পায় কৃষকরা সেই দাবি জানান তিনি।

বরুণ পাড়া গ্রামের কৃষক আব্দুল্লাহ বলেন, বিস্তীর্ণ মাঠজুড়ে এখন আমন ধান কাটার উৎসব চলছে। ফলন মোটামুটি ভালো হওয়ায় কৃষকরা খুশি। কিন্তু ফড়িয়া বা মধ্যস্বত্বভোগীদের তৎপরতায় ফসলের কাঙ্ক্ষিত মূল্য পাওয়া নিয়ে কৃষকদের মধ্যে রয়েছে শঙ্কা।

পূর্ববর্তী সংবাদ

কুষ্টিয়ায় মেয়ের বিয়ের দাওয়াত দিতে গিয়ে লাশ হলেন বাবা

কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার আমলা ইউনিয়নে অবৈধ ইঞ্জিন চালিত ট্রলির ধাক্কায় হাজ্বী আবুল হাসেম (৬০) নামের এক মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছেন। আজ মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে কুষ্টিয়া-মেহেরপুর আঞ্চলিক মহাসড়কে দাখিল মোড় এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

হাজ্বী আবুল হাসেম উক্ত এলাকার শের আলীর মেয়ে জামাই এবং আমলা বাজারের “বিসমিল্লাহ” গার্মেন্ট দোকানের মালিক।

নিহতের ছেলে সোহান জানান, “আগামী শুক্রবার আমার ছোট বোনের বিয়ে। তাই বিয়ের দাওয়াত দিতে যাচ্ছিলেন আমার বাবা। বাড়ী থেকে বের হওয়ার পর পরই খবর আসে তিনি মারা গেছেন।”

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকাল ১০টার দিকে মোটরসাইকেল নিয়ে কুষ্টিয়া-মেহেরপুর সড়কে পৌঁছায়। এসময় পিছন দিক থেকে আসা একটি ইঞ্জিন চালিত ট্রলি তাকে ধাক্কা দেয়। এতে আবুল হাসেম রাস্তায় ছিটকে পড়ে ট্রলির নিচে চাপা পড়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হয়।

ঘটনাস্থলে থাকা আমলা পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই আশরাফ জানান, ট্রলির ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই আবুল হাসেম নিহত হয়েছেন। স্থানীয়রা ঘাতক ট্রলিটি আটক করেছে। তবে চালক আল-আমিন পালিয়ে গেছে।

মিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহটি উদ্ধার করেছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার