খুলনার খর্নিয়া হাইওয়ে থানায় তালা লাগিয়ে দেওয়ার হুমকি যুবলীগ নেতার

Img

খুলনার ডুমুরিয়ার খর্ণিয়া হাইওয়ে থানায় তালা লাগিয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়েছেন উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক গোবিন্দ ঘোষ। সড়ক দুর্ঘটনায় পুলিশ কর্তৃক জব্দ করা গাড়ি না ছাড়া হলে তাদের বিরুদ্ধে মানববন্ধন করে থানা থেকে তাড়িয়ে দেওয়ার হুমকিও দিয়েছেন তিনি। তবে যুবলীগের ওই নেতা বলছেন, বার বার মিমাংশা করতে চাইলেও বিষয়টি আমলে না নেওয়ায় তিনি হুমকি দিতে বাধ্য হয়েছেন।

গত ১০ নভেম্বর সন্ধ্যায় খর্ণিয়া হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাহমুদকে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে তিনি হুমকি দেন। যার একটি কল রেকর্ড আমাদের কাছে এসেছে।

কল রেকর্ডটি এখানে হুবহু তুলে ধরা হল, ‘আমার নাম গোবিন্দ ঘোষ। বাড়ি চুকনগর পেট্রোল পাম্পের সামনে। ভাই আপনি কি আমাদের হাইওয়ে থানায় চাকরি করেন? আমি ডুমুরিয়া উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক এবং বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের ডুমুরিয়া উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক। ডুমুরিয়ার ঋষিপাড়ায় সেদিন রাত ১২ টা বা সাড়ে ১২ টার দিকে মোটরসাইকেল এবং একটি অটোয় এক্সিডেন্ট হয়েছিল। এ সময় সেখানে ডুমুরিয়া থানার এসআই কেরামত, ডুমুরিয়া সদরের যুবলীগের কনভেনার বরিউল ইসলাম এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক গোপাল চন্দ্র দে ছিল। সেখানে  বহুলোক রিকুয়েস্ট করার পরে ইউএনও স্যারের কাছে গিয়েছিলাম। ইউএনও স্যার আপনাকে ফোন দিয়েছিল এবং সেখানে স্টিল নাউ আমি উপস্থিত ছিলাম। যে আপনি আইনি প্রক্রিয়ায় জরিমানা করে অটোটি ছেড়ে দিতে পারেন। চুকনগরে কিন্তু অটো চলতেছে। আমার বাড়ি কিন্তু চুকনগর। আপনি কোন গাড়ি গ্রেফতার করছেন না। আপনি তো কিছু বললেই শুধু হাইকোর্ট দেখান। আমরা কিন্তু হাইকোর্ট দেখাবো না। আমরা জনবলের পাওয়ার দেখাবো। যেটা সাকুরীর বেলায় দেখায় ছিলাম। এখন গাড়ীটা ছেড়ে দেওয়ার ব্যবস্থা আপনাকে করতে হবে। আমার কথা বুঝতে পেরেছেন? না হলে কালকে বিকেলে ডুমুরিয়া উপজেলায় আপনার বিরুদ্ধে মানববন্ধন করতে বাধ্য হব। বিশেষ করে যুব সংগঠনের এবং ১১ তারিখে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী, আমরা কিন্তু আপনার গেটে তালা দিতে বাধ্য হব। আপনি খর্ণিয়া চলে যাবেন। চুকনগরে আপনার থাকার পরিবেশ থাকবে না। আমার কথা বুঝতে পেরেছেন?’

এ বিষয়ে খর্ণিয়া হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাহমুদ সত্যতা শিকার করে বলেন, তিনি আমাকে হুমকি দিয়েছেন। আমি বিষয়টি উর্ধত্তন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি।

হুমকি দাতা গোবিন্দ ঘোষ  বলেন, পুলিশ যদি জনতার বন্ধু হতে না পারে। তার নাকের ডগায় অটো চলবে সে তার বিরুদ্ধে কিছু করবে না। তার কাছে আইনী ক্ষমতা আছে আর আমদের আছে জনতার ক্ষমতা। আমরা বার বার তার সাথে বসে মিমাংশা করতে চেয়েছি। তিনি তা করেন নি। তাই আমি তাকে কল দিতে বাধ্য হয়েছি। তবে সে যদি কোথাও কোন অভিযোগ করে তাতে আমি শংকিত নই।

উল্লেখ্য, হুমকি দাতা গোবিন্দ ঘোষ খুলনা জেলার ডুমুরিয়া উপজেলার চুকনগর এলাকার মালতিয়া গ্রামের বাসিন্দা। তিনি ডুমুরিয়া উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক এবং বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের ডুমুরিয়া উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার