খাবার চুরির অপরাধে চাকরি হারালেন ব্যাংক কর্মকর্তা

Img

ক্যান্টিন থেকে খাবার চুরির অভিযোগে লন্ডনে চাকরি হারালেন এক উচ্চপদস্থ ভারতীয় ব্যাংক কর্মকর্তা। এ খবর দিয়েছে আনন্দবাজার পত্রিকা। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েন ওই কর্মকর্তা।

লণ্ডনের ক্যানারি ওয়ারফে সিটিব্যাংকের ইউয়োপীয় হেডকোয়ার্টারে উচ্চদস্থ কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করতেন পারস শাহ। তার বছরে আয় ছিলো ৯ কোটি ২০ লাখ টাকা। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম ফিনান্সিয়াল টাইমে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, জানুয়ারি মাসেই সিটিব্যাংকের বন্ড ট্রেডিং বিভাগের আধিকারিক পদ থেকে তাকে সরিয়ে দেওয়া হয়।

এইচএসবিসিতে সাত বছর কাটিয়েছেন পারস। তারপর ২০১৭ সালে পারস সিটিগ্রুপে যোগ দেন তিনি। খুব অল্প সময়ের মধ্যে সাফল্যের শিখরে পৌঁছেছিলেন তিনি।

ফিনান্সিয়াল টাইমসের রিপোর্ট অনুযায়ী, সামনেই সংস্থার সিনিয়ার কর্মীদের বোনাস পাওয়ার কথা ছিল। তার এক সপ্তাহ আগেই অভিযোগের আঙুল ওঠে পারসের বিরুদ্ধে। সংস্থা থেকে বিতাড়িত হন তিনি। যদিও পারস এই কাজ কতবার করেছেন তা জানা যায়নি। একাধিক সংবাদমাধ্যম থেকে যোগাযোগ করা হলেও, পারস এই বিষয়ে মুখ খুলতে চাননি।

পূর্ববর্তী সংবাদ

পাইকগাছায় কওমী মাদরাসা ছাত্রের আত্মহত্যা

শিববাটি কওমী মদরাসার বাথরুম থেকে গঁলায় রশি দেওয়া অবস্থায় হেফজ খানার ছাত্র হাফেজ শেখ শাকিল (১৩) মৃতদেহ পুলিশ উদ্ধার করেছে।

মাদরাসা শিক্ষকরা জানান, বুধবার ভোরে ফজরের আগে শাকিল পড়াশুনা করে  নামাজ পড়তে যাবার পূর্বে বাথরুমে ঢোকে। এক পর্যায়ে বের হতে দেরি হওয়ায় অন্য ছাত্ররা বাথরুমের দরজায় ধাক্কা দিলে তার ঝুলন্ত লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশের এসআই মিন্টু মিয়া লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল রিপোট শেষে ময়না তদন্তের জন্য খুমেক হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

মৃত্যুর পিছনে কি কি কারণ থাকতে পারে তা পুলিশ এ রহস্য খোজার চেষ্টা করছে। সে তালা উপজেলার কানাইদিয়া গ্রামের শেখ ওদুদ মিয়ার ছেলে। এ ঘটনায় অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

পুলিশ পরিদর্শক ( তদন্ত) আশরাফুল আলম বলেন,এটি আত্মহত্যা না, হত্যাকাণ্ড তা  ময়না তদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলে পরিস্কার হওয়া যাবে।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার