খাঁটি গুড় চেনার সহজ উপায়

Img

মৌসুম অনুয়ায়ী এখন শীতকাল। শীতকাল মানেই গ্রামে-গঞ্জে পিঠা পুলির উৎসব। শীতের এই মৌসুমে বাড়িতে বাড়িতে হরের রকম পিঠা তৈরির উৎসব। এ ছাড়াও রয়েছে খেজুর গাছের রস ও রস থেকে তৈরি গুড়। পিঠার স্বাদ বহুগুণ বাড়িয়ে তোলে এই খেজুরের গুড়। তবে বাজারে রয়েছে নানান রকম খেজুরের গুড়। নামের ও দামের ভিন্নতাও রয়েছে। তবে সব গুড় কি খেজুরের রস থেকে বানিয়েছে? এমন প্রশ্ন আপনার মনে আসতেই পারে। কারণ কোথায় ৪০০টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে আবার কোথাও ১০০০টাকা কেজি। তাহলে ভেজাল গুড় চিনবেন কীভাবে। 

চলুন কয়েকটা পদ্ধতি অবল্বন করে আপনিও চিনতে পারবেন কোনটি আসল খেজুরের রসের গুড় কোনটি ভেজাল গুড়।

১) গুড় কেনার সময় তা অবশ্যই চেখে (খেয়ে) দেখবেন। যদি তাতে একটু নোনতা স্বাদ পান তাহলেই বুঝবেন অন্য কিছু মেশানো রয়েছে তাতে। আর এমন গুড় যত পুরনো হবে তাতে নুনের মাত্রা তত বেশি হবে।

২) যদি গুড়ের স্বাদ একটু তেতো হয় তাহলে বুঝবেন সেই গুড় বেশি ফোটানো হয়েছে। আর তাতে অন্য শর্করা মেশানো হয়েছে।

৩) গুড় কেনার সময় খেয়াল করবেন তার কিছু অংশ স্ফটিকের মতো কিনা। যদি গুড়ে স্ফটিকের মতো অংশ থাকে তাহলেই বুঝতে হবে তা বাড়তি মিষ্টি করার জন্য অন্যকিছু মেশানো হয়েছে।

৪) গুড় কেনার সময় তাঁর রং অবশ্যই দেখে নেবেন। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দর্শনেই গুণ বিচার করা যায়। শুদ্ধ গুড়ের রং গাঢ় বাদামি হয়ে থাকে। হলদেটে গুড় দেখলেই বুঝবেন তাতে রাসায়নিক মেশানো হয়েছে।

৫) গুড়ের ডেলাটি একটু টিপে দেখে নেবেন। গুড় যত শক্ত হবে, ততই ভাল। শক্ত গুড়ে অন্যান্য সামগ্রী মেশানোর সম্ভাবনা প্রায় থাকে না বললেই চলে।

শীতে মুখ মিষ্টি করার অনেক উপায় রয়েছে এ কথা সত্য। তবে এ কথাও সত্য যে বাঙালির কাছে গুড়ের কোনও বিকল্প নেই। বিশেষ করে গরম ধোঁয়া ওঠা পিঠের সঙ্গে। তাই বেছে খান। আর সেরাটা পান।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার