কাল ভোট, লক্ষ্মীছড়িতে চেয়ারম্যান পদে ত্রিমুখী লড়াইয়ের সম্ভাবনা

Img

খাগড়াছড়ির লক্ষ্মীছড়িতে আগামীকাল ১৮ মার্চ অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনে ত্রিমুখী লড়াই হবে বলে সাধারণ ভোটার ও সচেতন মহলের ধারণা।

লক্ষ্মীছড়ি উপজেলার নির্বাচনের ইতিহাসে এবারই প্রথম চেয়ারম্যান পদে ৫ জন, পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪ জনসহ ১২ জন প্রার্থী নির্বাচন করছেন। এর মধ্যে শুধুমাত্র ১টি পদে বাঙালি প্রার্থী নুরে আলম টিউবওয়েল প্রতীক নিয়ে পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে লড়াই করছেন। বিপরীতে রয়েছে আরো ২ জন উপজাতীয় প্রার্থী। তার সাথে লড়বেন রাজু চাকমা দিপান্তর (তালা) প্রতীক ও উল্লাচি মারমা (চশমা) প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছেন।

মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৪ জন। সুমনা চাকমা (তীর-ধনুক), মেরিনা চাকমা (ফুটবল), মিনুচিং মারমা (পদ্মফুল) ও রত্না চাকমা (কলস) প্রতীক নিয়ে নির্বাচনী মাঠে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আছেন।

এবার নির্বাচনের মাঠ পূর্বের যেকোন নির্বাচনের চেয়ে একটু আলাদা। প্রধান বিরোধী দল (বিএনপি) নির্বাচনে অংশ না নেয়ায় মাঠে নেই ততটা উত্তাপ। তবে আঞ্চলিক দলের প্রভাব থাকায় নির্বাচন হয়ে উঠছে তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ। দলীয় প্রতীকের নির্বাচন হওয়ায় বিজয়কে প্রার্থীরা নিয়েছে চ্যালেঞ্জ হিসেবে।

একদিকে সরকার দলীয় প্রার্থীর মর্যাদার লড়াই অপরদিকে স্বতন্ত্র প্রার্থীরা দেখছে ইমেজ রক্ষার চ্যালেঞ্জ। এই চ্যালেঞ্জকে সামনে রেখে প্রচারণাও চলছে ভিন্ন ভিন্ন কৌশলে। এলাকাভেদে বর্তমান প্রেক্ষাপটের আলোকে রাজনৈতিক দলের নেতাদের পাশাপাশি পাড়ার হেডম্যান- কারবারী ও মুরব্বীদের কদর বেড়েছে।

লক্ষ্মীছড়ি উপজেলায় মোট ভোটার ১৮ হাজার ৩০০। ১৫ হাজার কাস্টিং ভোট ধরলেও ভোটের বড় অংকটাই চাকমা। ছোট অংকটা বাঙালির মধ্যে রয়েছে হিন্দু ও সাঁওতাল। মারমা ভোটার প্রায় ৪ হাজার।

উপজেলা চেয়ারম্যান পদে মারমা প্রার্থী ২ জন। চাকমা প্রার্থী ৩ জন। বাঙালি কোন প্রার্থী না থাকায় ভোট বিশ্লেষকরা মনে করছেন এই অঙ্কের ভোট যেদিকে ঝুঁকবে সে- ই হবে বিজয়ী। ভোটের হিসেবে আনারস প্রতীকে রাজেন্দ্র চাকমা এগিয়ে থাকলেও তার ভোট ব্যাংকে ভাগ বসাতে পারেন দোয়াত কলম প্রতীকের স্বপন চাকমা ও ঘোড়া প্রতীকের নিলবর্ণ চাকমা। নৌকা প্রতীকের বাবুল চৌধুরী ও মোটর সাইকেল প্রতীকের অংগ্য প্রু মারমাও জয়ের স্বপ্ন দেখছেন।

নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণায় এগিয়ে আছেন উপজেলা চেয়ারম্যান পদে সরকার দলীয় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বাবুল চৌধুরী। নৌকা প্রতীকের গণসংযোগ চোখে পড়ার মতো।

পোস্টার লিফলেট, ব্যানার ঝুলছে পুরো উপজেলায়। প্রচারণার মাইকিং চলেছে সমানতালে। প্রার্থী বাবুল চৌধুরী প্রতিদিনই কোন কোন এলাকায় গণসংযোগে যাচ্ছেন ও পাচ্ছেন ভোটারদের ব্যাপক সাড়া। এমনটাই জানালেন, নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মারমা নেতা বাবুল চৌধুরী।

মোটরসাইকেল প্রতীকের প্রার্থী অংগ্য প্রু মারমার গণসংযোগ জোরে-শোরে চালাচ্ছেন প্রত্যন্ত এলাকায় পাহাড়ি পল্লীগুলোতে। শো-ডাউন কিছুটা কম থাকলেও ভোটারদের ঘরে ঘরে বেশি যাচ্ছেন এই প্রার্থী, এমনটাই জানালেন তিনি।

লক্ষ্মীছড়ি ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান রাজেন্দ্র চাকমা আনারস প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছেন। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন বলে দাবি করলেও গুঞ্জন রয়েছে নেপথ্যে আঞ্চলিক দলের সমর্থন দেয়ার বিষয়টি। যদিও সংগঠনের পক্ষ হতে তা নাকচ করা হয়েছে।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার