ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে করোনা উপসর্গ নিয়ে আব্দুর রহমান (৬৫) নামের এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (৩০ জুন) সকালে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হলে তার মৃত্যু হয়।

আব্দুর রহমান হেলাই গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে। তিনি জ্বর ও শ্বাসকষ্টসহ বেশ কিছু রোগে ভুগছিলেন।

মৃতের বউমা (ছেলের স্ত্রী) শিউলী বেগম জানান, তার শশুরের হাই প্রেসার ছিল। এছাড়া গত কয়েকদিন আগে পাতলা পায়খানা হয়। অপরদিকে গতকাল (২৯ জুন) থেকে জ্বর ও হালকা শ্বাসকষ্টও শুর হয়। এছাড়া তার প্ররসাব বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। সকালে তাকে উপজেলা স্বাস্থ কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে তার মৃত্যু হয়। তার শরীরে করোনা আছে কিনা তা পরীক্ষার করার জন্য ডাক্তাররা মৃতদেহ হাসপাতালে রেখে দিয়েছেন।

কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আরএমও ডা. সুলতান আহমেদ জানান, রোগীর জ্বর, শ্বাসকষ্টসহ বেশকিছু রোগ ছিল। করোনা উপসর্গ ছিল কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, যেহেতু জ্বর, শ্বাসকষ্টসহ অন্যান্য রোগ ছিল সেহেতু করোনা সাসপেক্ট করতেই পারি। এজন্য উপজেলা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মাধ্যমে রোগীর শরীর থেকে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। রিপোর্ট আসলে জানাযাবে তার শরীরে করোনা ছিল কিনা।

এছাড়া গত রোববার (২৮ জুন) রাতে একই গ্রামের কাপড় ব্যবসায়ী মোস্তাক আহমেদ (৫০) করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যান। তিনি হেলাই গ্রামের গ্রামের মতলেব মন্ডলের ছেলে। মোস্তাক আহমেদ জ্বর, শ্বাসকষ্ট ও ডায়াবেটিস রোগে ভুগছিলেন।