বিশ্বব্যাপি করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ায় সতর্ক অবস্থানে রয়েছে দেশগুলোও। ক্রিকেটাররাও এর ব্যতিক্রম নয়। সম্প্রতি ভাইরাসটির কারণে শ্রীলঙ্কা সফরে করমর্দন করবেনা বলে জানিয়েছে ইংলিশ ক্রিকেট দল। এবার ভারত সফরেও করমর্দন করবে না বলে জানিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দল।

মানব সংস্পর্সে বেশি করোনাভাইরাস ছড়ায় বলে জানিয়েছে ডাক্তাররা। ছোঁয়াচে এই ভাইরাসটি মানুষের হাতের স্পর্শের মাধ্যমে দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে পারে। আর এই ভয়েই হ্যান্ডশেক বা করমর্দনকে ‘না’ বলেছে দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দল।

দলটির প্রধান কোচ ও সাবেক ক্রিকেটার মার্ক বাউচার বলেন, ‘করমর্দন যদি উদ্বেগজনক না হয় তাহলে আমরা এটা করতে পারি। কিন্তু আমি মনে করি আমাদের ছেলেদের করমর্দন বন্ধ করা উচিৎ। এমন নয় যে আপনি সহ-খেলোয়াড়কে শ্রদ্ধা করছেন না, বরং আপনি তার কাছে ক্ষতিকারক কিছু বহন করছেন না। আমাদের সুরক্ষার বিষয় দেখভালের জন্য কর্মকর্তা সাথে আছেন। তারা বলেছেন, ভাইরাসটির ছড়িয়ে পড়া দুশ্চিন্তার বিষয়। আমাদের জন্য যেটি ভালো হয় সেই পরামর্শই তারা দেবে।’

বাউচারের কথায় এটি স্পষ্ট- ভারত সফরে করমর্দন এড়িয়েই চলবেন কুইন্টিন ডি ককরা। এর আগে ইংল্যান্ডও ঘোষণা দিয়েছে, শ্রীলঙ্কা সফরে তারা করমর্দন করবে না। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে করমর্দন এড়িয়ে যাওয়ার কোনো সিদ্ধান্ত অবশ্য অস্ট্রেলিয়া নেয়নি।