সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবুধাবী থেকে ঈদের ছুটিতে ওমানে বেড়াতে গিয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় এক প্রবাসীর মৃত্যু হয়েছে। নিহত মোহাম্মদ জহির আলী (৩৬) সিলেটের দক্ষিণ সুনামগঞ্জের নোয়াখালী বাজার গ্রামের হাসান আলীর পুত্র।

তিনি দীর্ঘ ১৫ বছর ধরে আবুধাবিতে কর্মরত ছিলেন। তারঁ স্ত্রী ও ৭ বছরের একটি কন্যা এবং ৩ বছরের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে।

নিহত জহিরের বড় ভাই সবুজ আলীও আবুধাবিতে কর্মরত আছেন।

জানা যায়, গত সপ্তাহের মঙ্গলবার (৪ জুন) সংযুক্ত আরব আমিরাতের ঈদের নামাজ শেষে জহির আবুধাবি থেকে ওমানের ইয়েমেন সীমান্তবর্তী শহর সালালা এর উদ্দেশ্যে গাড়ি নিয়ে রওনা হন। ঐদিন ওমানের সালালার পূর্বদিকে অবস্থিত জাফার সিটির তাম্রিদে স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় তিনি দুর্ঘটনার কবলে পড়েন। দুর্ঘটনার পর থেকেই নিহত জহির আলির সাথে আবুধাবিতে এবং দেশে সবার সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ায় পরিবার পরিজন ও পরিচিত মহলে উৎকণ্ঠিত হয় পড়েন। ঈদের ছুটিতে অফিসপাড়া বন্ধ থাকায় তার কোনও প্রকার খোঁজ পাওয়া যায় নি। গত শনিবার(৯ জুন) সালালার তাম্রিদ পুলিশ স্টেশন হতে নিহত জহিরের মোবাইল ফোন থেকে নম্বর সংগ্রহ করে ওমান পুলিশ যোগাযোগ করলে পরিবার ও স্বজনেরা জহিরের মৃত্যুর খবর পান।

বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায়, নিহত জহির ঈদের আগের সারারাত জেগে বন্ধু বান্ধব সকলের সাথে ঘোরাঘুরির পর একাই দীর্ঘ ১৭ শ কিলোমিটার পথ ড্রাইভ করার অবসাদে তন্দ্রাচ্ছন্ন হয়ে পড়েন এবং গাড়িটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তা থেকে ছিটকে পড়ে দুর্ঘটনা ঘটে।"

নিহতের ভাই সবুজ আলী রোববার(৯ জুন) ওমানে গিয়ে প্রয়োজনীয় আনুষ্ঠানিকতা শেষে জহিরের লাশ দেশে ফিরিয়ে নেওয়ার ব্যবস্হা করবেন।