উপজেলা নির্বাচন: চকরিয়ায় ভোটগ্রহণ শুরু

Img

৫ম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপে কক্সবাজার জেলার চকরিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। সোমবার (১৮ মার্চ) সকাল ৮টায় শুরু হওয়া ভোটগ্রহণ চলবে একটানা বিকাল ৪টা পর্যন্ত। ১৮টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা নিয়ে চকারিয়া উপজেলা। উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে এ উপজেলায় মোট ভোট কেন্দ্র রয়েছে ৯৯টি। ভোট কক্ষ রয়েছে ৬৩৪টি। ভোটার রয়েছে মোট ২৮৪৫৫৫ জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ১৪৮৯০৫ জন এবং মহিলা ভোটার ১৩৫৬৫০ জন।

প্রত্যেক ভোট কেন্দ্রের জন্য একজন করে প্রিজাইডিং অফিসার নিয়োগ দেয়া হয়েছে। ১৫ জন অতিরিক্ত প্রিজাইডিং অফিসারকে যেকোন সময় দায়িত্বপালনের জন্য প্রশিক্ষণ দিয়ে স্টেনবাই রাখা হয়েছে। কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাচন অফিসার শিমুল শর্মা জানান, উপজেলা নির্বাহী অফিসারসহ মোট ২১জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট চকরিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দায়িত্বপালনের জন্য নিয়োগ দেয়া হয়েছে। চকরিয়া চৌকি আদালতের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রাজিব কুমার দেব-কে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হিসাবে নির্বাচনে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

তিনি ইতোমধ্যে নির্বাচনী অপরাধ ও অভিযোগ সমূহ আমলে নিয়ে বিচারিক কার্যক্রম শুরু করে দোষী প্রার্থীদের জরিমানাও করেছেন। নির্বাচনে পুলিশের পাশাপাশি ২০ প্লাটুন বিজিবি ও দুই প্লাটুন র্যাব নিয়োগ দেয়া হয়েছে। রোববার সকাল থেকেই তারা দায়িত্ব পালন করছেন। শনিবার রাত থেকেই চকরিয়ার সর্বত্র মোটর সাইকেল চলাচল সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। রোববার বিকেল থেকে অত্যাবশ্যকীয় যানবাহন ছাড়া অন্য সকল প্রকার যান চলাচল নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। নৌযান চলাচলও বন্ধ রাখা হয়েছে।

পাস পাওয়া গণমাধ্যমকর্মী, পর্যবেক্ষক, নির্বাচন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি ছাড়া অন্যান্যরা ভোট কেন্দ্র এলাকায় যেতে পারবেন না। কক্সবাজার, লামা, আলীকদমে বেড়াতে আসা পর্যটকদের রোববার রাত থেকে সোমবার পর্যন্ত যতদূর সম্ভব চকরিয়া উপজেলার ভৌগোলিক এলাকা এড়িয়ে যেতে নির্বাচন কমিশন থেকে পরামর্শ দেয়া হয়েছে। ভোটগ্রহণের দিন সোমবার চকরিয়া উপজেলায় সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।

এদিন নির্বাচন সংশ্লিষ্ট ও অত্যাবশ্যকীয় অফিস ছাড়া সকল সরকারি, বেসরকারি, আধাসরকারি, স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। নির্বচনে কোনো ধরনের গোলযোগ সৃষ্টির চেষ্টা, সন্ত্রাস, পরিবেশকে অশান্ত করতে চাইলে তা কঠোর হস্তে দমন করা হবে বলে উল্লেখ করে রিটার্নিং অফিসার মোহাম্মদ বশির আহমেদ জানান, নির্বাচনকে অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ করতে সব ধরনের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। প্রতিদ্বন্দ্বি কোন পক্ষকে বিন্দু পরিমাণ প্রভাব বিস্তার করতে দেয়া হবেনা উল্লেখ করে তিনি বলেন, অত্যন্ত শান্তিপূর্ণ, ভীতিমুক্ত ও নিরাপদ পরিবেশে ভোটগ্রহণ করা হবে ইনশা-আল্লাহ। চিহ্নিত ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রগুলোতে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

চকরিয়া উপজেলার সর্বত্র শনিবার সন্ধ্যা থেকেই নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা হয়েছে। নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন চেয়ারম্যান পদে চারজন, ভাইস চেয়ারম্যান পুরুষ পদে ৫জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে তিনজন প্রার্থী। তাঁরা হলেন চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ দলীয় প্রার্থী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী (নৌকা), নাগরিক কমিটি মনোনীত স্বতন্ত্র প্রার্থী চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ক্রীড়া সংগঠক আলহাজ ফজলুল করিম সাঈদী (আনারস), উপজেলা আওয়ামীলীগের অপর সহ-সভাপতি মোক্তার আহমদ চৌধুরী (মোটর সাইকেল) ও শ্রমিক নেতা জহিরুল ইসলাম (দোয়াত কলম)।

পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান আঞ্চলিক গানের সম্রাট সিরাজুল ইসলাম আজাদ (টিউবওয়েল), চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ- সভাপতি ছৈয়দ আলম কমিশনার (চশমা), মাতামুহুরী সাংগঠনিক উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি মকছুদুল হক ছুট্টু (বই), চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রচার সম্পাদক আবু মুছা (উড়োজাহাজ) ও চকরিয়া পৌরসভা যুবলীগের সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক বেলাল উদ্দিন শান্ত (তালা)।

মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান (ভারপ্রাপ্ত উপজেলা চেয়ারম্যান) আলহাজ সাফিয়া বেগম শম্পা (ফুটবল), সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি জাহানারা পারভীন (হাঁস) ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জেসমিন হক জেসি চৌধুরী (কলসি)।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার