ইমাম সাহেবকে রামদা দিয়ে কোপ, হাতের কব্জি ও আঙুল বিচ্ছিন্ন

Img

বরিশালের বাবুগঞ্জে ধারালো অস্ত্র (রামদা) দিয়ে কুপিয়ে মাওলানা মো. ইয়াকুব আলীর (৪৫) নামে মসজিদের এক ইমামের বাম হাতের কব্জি এবং ডান হাতের দুটি আঙ্গুল বিচ্ছিন্ন করেছে এক যুবক।

শুক্রবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার জাহাঙ্গীর নগর ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পরপরই থানা পুলিশ হামলাকারী বাবুল মাঝিকে (২৫) একটি ধারালো রামদা ও বিচ্ছিন্ন কব্জিসহ আটক করে।

আহত ইয়াকুব আলী স্থানীয় পশ্চিম ইসলামপুর জামে মসজিদের ইমাম। আশঙ্কাজনক অবস্থায় চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে।

বরিশাল জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শাজাহান জানান, আটক বাবুল মাঝি চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ার একটি মাদ্রাসায় পড়ালেখা শেষ করে সম্প্রতি গ্রামে ফিরে আসে। ওই মসজিদের ইমামের নামাজ পড়ানোয় ত্রুটি আছে বলে সে দাবি করে আসছে। সম্প্রতি সে ওই মসজিদে তার মতো করে এতেকাফের জন্য বসতে চায়। কিন্তু ইমাম ইয়াকুব আলী তাকে এতেকাফে বসতে বাঁধা দেয়। এর জের ধরে ব্যক্তিগত আক্রোশের বশবর্তী হয়ে শুক্রবার রাতে পশ্চিম ইসলামপুর জামে মসজিদের সামনে ইমাম ইয়াকুব আলীকে একা পেয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে তার বাম হাতের কব্জি এবং ডান হাতের দুটি আঙ্গুল বিচ্ছিন্ন করে ফেলে বাবুল মাঝি। আশঙ্কাজনক অবস্থায় ইমাম মাওলানা ইয়াকুব আলীকে প্রথমে ব‌রিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতাল ও পরে সড়ক পথে ঢাকায় পাঠানো হয়।

তিনি আরও জানান, অভিযান চালিয়ে বাবলু মাঝিকে আটকের করার পর জিজ্ঞাসাবাদে তিনি স্বীকার করেছেন, পরিকল্পিতভাবেই কুপিয়ে হত্যাচেষ্টা চালান। বাবলু মাঝি চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ার একটি মাদরাসা থেকে আলিম পাস করেছেন। হামলাকারী বিশেষ কোনো মতাদর্শের অনুসারী কি-না, সেটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শাজাহান জানান, হামলাকারী বাবুল মাঝির বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। মামলা আহতের স্বজনরা না করলে পুলিশ বাদী হয়ে মামলা দায়ের করবে।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার