ইউর সাথে ব্রিটেনের দীর্ঘ ৪৭ বছরের সম্পর্কের চূড়ান্ত বিচ্ছেদ ঘটল গত ৩১ জানুয়ারি ব্রেক্সিট বাস্তবায়নের মাধ্যমে। ২০১৬ সালের রেফারেনডাম ইলেকশনের রায় হিসেবে এই বিচ্ছেদ চুক্তি কার্যকর করা হল। এই নতুন পরিস্থিতে ইউরোপিয়ান দেশগুলো হতে ইংল্যান্ডে  এসে বসবাসরত মানুষদের মাঝে ব্যাপক অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে।

এই প্রেক্ষাপটে লন্ডনের  টাওয়ার হ্যামলেটে বসবাসরত ইউ ভুক্ত ২৭টি দেশের নাগরিকদের উদ্দেশ্য টাওয়ার হ্যামলেটের মেয়র জন বিগস সকল ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেছেন।

টাওয়ার হ্যামলেটে কাউন্সিলে ইউভুক্ত ২৭টি দেশের ৪১ হাজারের বেশি নাগরিক বসবাস করেন। তাদের উদ্দেশ্য জন বিগস বলেন এই দেশ তাদেরও আমি মেয়র হিসেবে তাদের আশ্বস্ত করতে চাই নতুন পরিস্থিতে যে কোন সমস্যা মোকাবেলায় টাওয়ার হ্যামলেট কাউন্সিল তাদের পাশে থাকবে।

টাওয়ার হ্যামলেটের অধিকাংশ মানুষ ইউর সাথে থাকার পক্ষে ভোট দিয়েছিলেন। অতীতে ন্যায় আবারও এই বারার মানুষ ঐক্য বব্ধ ভাবে তাদের প্রতিবন্ধকতা দূর করবে এবং জয়ী হবে। 

গত বছর টাওয়ার হ্যামলেট কাউন্সিলের পক্ষ হতে ব্রেক্সিট কমিশন গঠন করা হয়েছিল। কমিশন তার প্রতিবেদনে ব্রেক্সিটের কারনে কি কি পতিক্রিয়া হবে তা তুলে ধরেন। এতে মেডিকেল স্টাফ সংকটসহ স্থানীয় অর্থনীতি, পাবলিক সার্ভিস এবং সিভিল সোসাইটির উপর নেতিবাচক পতিক্রিয়া এমন কি ইউ নাগরিকদের অধিকার নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়। এই প্রতিবেদনের প্রেক্ষিতে মেয়র জন বিগস তার বার্তা প্রদান করেন।