আখাউড়ায় সম্ভাব্য ২ মেয়র প্রার্থীর পোস্টার-ব্যানার ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ

image
image

আখাউড়া পৌর নির্বাচনের প্রচার প্রচারনা ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে। প্রার্থীরা তাদের প্রচারনার মাধ্যমে তাদের অবস্থান জানান দিচ্ছেন। আসন্ন পৌর নির্বাচনে আখাউড়া পৌরসভার সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী ও আওয়ামীলীগ নেতা মোবারক হোসেন রতন এবং আওয়ামী লীগের নেতা নুরুল হক ভুইয়ার  সাটানো বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং স্থানীয় সংসদ সদস্য দেশের আইনমন্ত্রী এ্যাডভোকেট আনিসুল হকের ছবি সম্বলিত পোস্টার-ব্যানার ছেঁড়ার অভিযোগ উঠেছে।

মঙ্গলবার সকালে আখাউড়া পৌরশহরের বিভিন্ন স্থানে সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী মোবারক হোসেন রতনের একাধিক  পোস্টার-ব্যানার ছেঁড়া অবস্থায় রাস্তায় পড়ে থাকতে দেখা যায়।

এসময় তার সমর্থকরা ক্ষোভ প্রকাশ করেন। 

জানাগেছে, আখাউড়া পৌরসভার নির্বাচনকে সামনে রেখে ইতিমধ্যে সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থীদের পদচারনা পাড়া-মহল্লায় শুরু হয়েছে। সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থীরা পৌরবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে তাদের জনগণের সহানুভ‚তি পাওয়ার লক্ষ্যে পৌর এলাকার বিভিন্ন স্থানে পোস্টার ও ব্যানার সাটিয়েছেন।

আখাউড়া পৌরসভার সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী মোবারক হোসেন রতন জানান, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও আওয়ামীলীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং স্থানীয় সংসদ সদস্য আমাদের আইনমন্ত্রী মহোদয় এ্যাডভোকেট আনিসুল হকের ছবি সম্বলিত ২০-২৫টি ব্যানার ও পাঁচশতাধিক পোস্টার রাতের আধাঁরে কে বা কারা পৌরশহরের মসজিদপাড়া, কলেজপাড়া, বাইপাস, দেবগ্রাম, রাধানগরসহ বিভিন্ন স্থান থেকে ছিঁড়ে ফেলেছে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার তিনি আখাউড়া থানায় মৌখিক অভিযোগ করেছেন। আখাউড়া সিএনজি অটোরিকশা অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি মো. আবুল কালাম আজাদ ও কামাল মিয়াসহ রতনের সমর্থকরা বলেন, পোস্টার ও ব্যানার ছেঁড়া হীন মানসিকতার কাজ। পোস্টার-ব্যানার ছেঁড়ার মাধ্যমে আমাদের প্রার্থীকে জনগণের মন থেকে মুছে ফেলতে পারবে না।

এই বিষয়ে পৌর মেয়র প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা ও সাবেক পৌর মেয়র নুরুল হক ভুইয়ার কাছে জানতে চাইলে তিনি প্রতিবেদক কে বলেন,  এটা খুবই দুঃখজনক দেবগ্রাম ও দূর্গাপুর সহ বিভিন্ন এলাকায় আমার নির্বাচনী ব্যানার স্থাপন করেছিলাম।  কিন্তু রাতের আধারে কে বা কাহারা এগুলো কোথায় নিয়ে ছিড়ে ফেলেছে আমি এর হদিসই পাইলাম। 

তিনি আরো বলেন, এর বিচারের ভার আমি জনগনের উপর ছেড়ে দিলাম। 

আখাউড়া থানার ওসি রসুল আহম্মদ নিজামী বলেন, আওয়ামী লীগ নেতা মোবারক হোসেন রতন ও নুরুল হক ভুইয়ার পোস্টার-ব্যানার ছেঁড়ার ঘটনাটি পুলিশ প্রশাসন দেখার বিষয় নয়। যেহেতু এটি প্রাক-নির্বাচনী ঘটনা সেহেতু বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের আওতাধীন। তবে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার