অর্থ পাচারের অভিযোগে নাজিবের বিরুদ্ধে তিনটি মামলা

শেখ সেকেন্দার আলী | নিজস্ব প্রতিবেদক : অগাস্ট ৮, ২০১৮

মালয়েশিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট নাজিব রাজাকের বিরুদ্ধে অর্থ পাচারের অভিযোগে ৩টি মামলা হয়েছে। রাষ্ট্রীয় তহবিলের অর্থ চুরির ঘটনা তদন্তের ধারাবাহিকতায় আজ বুধবার তার বিরুদ্ধে এই তিন অভিযোগ আনা হয়। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স আদালতকে উদ্ধৃত করে এ খবর জানিয়েছে। নাজিব রাজাক ক্ষমতায় থাকা অবস্থাতেই তার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ ওঠে।

রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন বিনিয়োগ তহবিল ওয়ান মালয়েশিয়া ডেভেলপমেন্ট বেরহাদের (ওয়ানএমডিবি) অর্থ আত্মসাৎ করে নাজিব নিজ ব্যাংক হিসাবে জমা করেছিলেন বলেও অভিযোগ উঠেছিল। তবে নাজিব এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। রয়টার্স জানায়, মালয়েশিয়ার নিম্ন আদালতে দায়ের করা এই অভিযোগে বলা হয়েছে, রাষ্ট্রীয় তহবিল থেকে তিনটি লেনদেনের মাধ্যমে নাজিব রাজাকের ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্টে প্রায় চার কোটি ২০ লাখ রিঙ্গিত বা এক কোটি মার্কিন ডলার স্থানান্তর করা হয়েছে।

গতকাল বুধবার বিচারক আগের অভিযোগসহ এই অভিযোগ শুনানির জন্য উচ্চ আদালতে স্থানান্তর করেন। মালয়েশিয়ার আইন অনুযায়ী, অর্থ পাচারের মামলায় ১৫ বছর পর্যন্ত কারাদ-ের পাশাপাশি জরিমানাও করা হয়ে থাকে। আর পাচারকৃত অর্থের পাঁচগুণ বা ৫০ লাখ রিঙ্গিতের মধ্যে যেটা বেশি হবে তাই হবে জরিমানার পরিমাণ।

সম্প্রতি নাজিব রাজাকের বাড়ি থেকে ৩০০ মিলিয়ন ডলারেরও বেশি মূল্যের সম্পদ জব্দ করা হয়েছে। বাংলাদেশি মুদ্রায় এর পরিমাণ দুই হাজার ৫৩৫ কোটি ৫৯ লাখ ৮৫ হাজার টাকারও বেশি।

জব্দকৃত সম্পদের মধ্যে রয়েছে ১২ হাজার পিস গয়না, বিভিন্ন ব্যাগে প্রায় তিন কোটি ডলারের সমমূল্যের ২৬টি দেশের মুদ্রা, ৪২৩টি ঘড়ি এবং ২৩৪ জোড়া সানগ্লাস। রয়েছে খ্যাতনামা নকশাকারদের তৈরি নানা মূল্যবান ও সৌখিন সামগ্রী। আর এসব সামগ্রীর হিসাব মেলাতে পুলিশের সময় লেগেছে মোট ১৬ দিন।

তথ্য:

বিভাগ:

প্রকাশ: অগাস্ট ৮, ২০১৮

প্রতিবেদক: শেখ সেকেন্দার আলী

পড়েছেন: 550 জন

মন্তব্য: 0 টি