সর্বশেষ সংবাদ

  1. ময়মিনসিংহ জাতীয়তাবাদী ফোরাম কর্তৃক জিয়াউর রহমান এর ৮২তম জন্মদিন পালন।
  2. গাড়ি পার্কিংয়ের জন্য অনুকরণীয় হতে পারে মালয়েশিয়া
  3. মালয়েশিয়াস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে ট্রাভেল পাস ইস্যুতে কড়াকড়ি! সক্রিয় দালালরা
  4. মালয়েশিয়ায় ওয়েসিস কলেজের সমাবর্তন অনুষ্ঠিত
  5. মালয়েশিয়া পেরাক রাজ্যের কান্তানে জিয়াউর রহমানের জন্ম বার্ষিকী পালিত
  6. মা-বাবা হারা এই শিশুদের পাশে থাকবে প্রবাসীরা
  7. চট্টগ্রামে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সম্মেলন সম্পন্ন
  8. রাজশাহীর মদীনাতুল উলুম মাদরাসা ছাত্রাবাসকে তিনতলায় উন্নীতকরণ
  9. দাগনভূইয়ায় স্বেচ্ছাসেবক লীগ সাংগঠনিক সম্পাদককে হত্যা
  10. মালয়েশিয়ায় এশিয়ান টিভির বর্ষপূর্তি পালন
সংসদ ভেঙ্গে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে হবে: খালেদা জিয়া।

সংসদ ভেঙ্গে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে হবে: খালেদা জিয়া।

আমীর হোসেন, প্রতিনিধি

বিএনপি নির্বাচনে যাবে, তবে সংসদ ভেঙ্গে দিয়ে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে হওয়া চাই আগামী জাতীয় নির্বাচন। ছাত্রদলের ৩৯ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভায় একথা বলেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।

মঙ্গলবার বিকেলে ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউটের অডিটোরিয়ামের সামনের গেটে প্রায় এক ঘণ্টা অপেক্ষার পর বেগম জিয়াকে সমাবেশ স্থলে ঢুকতে গেট খুলে দেয় কর্তৃপক্ষ। বিকেল সাড়ে চারটার দিকে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশনে আসেন বেগম জিয়া। এর আগেই বিএনপির মহাসচিবসহ দলের ও বিভিন্ন অঙ্গ-সংগঠনের নেতারা সমাবেশ স্থলে আসেন। ব্যানার ফেস্টুন নিয়ে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা নানা শ্লোগান দিয়ে বিকেল তিনটার আগেই সমাবেশ-স্থলে উপস্থিত হন। এর আগে সকাল দশটার দিকে রাষ্ট্রপতির নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর পূর্বনির্ধারিত এই অনুষ্ঠানের অনুমতি বাতিল করে প্রশাসন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বেগম জিয়া বলেন, 'দেশে বাক স্বাধীনতা নেই, এক ব্যক্তি শাসন চলছে । ২০১৪ সালের নির্বাচনে এরা তো ভোটই পায়নি। এরা পার্লামেন্টের মেম্বার থাকার যোগ্য নয়। পার্লামেন্ট ভেঙ্গে দিয়েই নির্বাচন দিতে হবে। বিএনপি নির্বাচনী দল আমরা নির্বাচন করবো। বাইরে রাখতে চাইলেই আমাদের রাখা যাবে না। আমরা নির্বাচন করবো নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে। হাসিনার অধীনে নয়।'

তিনি আরো বলেন, 'আজ দেশের মানুষের কথা বলার অধিকার নেই। তার প্রমাণ আমরা দেখলাম কিছুক্ষণ আগেই। হঠাত করে কেন বলা হলো তারা অনুমতি দেয়নি। সেই সঙ্গে তালা লাগিয়ে দেয়া হলো। এ কেমন গণতন্ত্র ! দেশে কোন উন্নয়ন নেই। আজ দশ টাকা কেজি চালের জায়গায় ৭০ টাকা কেজি চাল।

-সময় নিউস