সর্বশেষ সংবাদ

  1. ময়মিনসিংহ জাতীয়তাবাদী ফোরাম কর্তৃক জিয়াউর রহমান এর ৮২তম জন্মদিন পালন।
  2. গাড়ি পার্কিংয়ের জন্য অনুকরণীয় হতে পারে মালয়েশিয়া
  3. মালয়েশিয়াস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে ট্রাভেল পাস ইস্যুতে কড়াকড়ি! সক্রিয় দালালরা
  4. মালয়েশিয়ায় ওয়েসিস কলেজের সমাবর্তন অনুষ্ঠিত
  5. মালয়েশিয়া পেরাক রাজ্যের কান্তানে জিয়াউর রহমানের জন্ম বার্ষিকী পালিত
  6. মা-বাবা হারা এই শিশুদের পাশে থাকবে প্রবাসীরা
  7. চট্টগ্রামে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সম্মেলন সম্পন্ন
  8. রাজশাহীর মদীনাতুল উলুম মাদরাসা ছাত্রাবাসকে তিনতলায় উন্নীতকরণ
  9. দাগনভূইয়ায় স্বেচ্ছাসেবক লীগ সাংগঠনিক সম্পাদককে হত্যা
  10. মালয়েশিয়ায় এশিয়ান টিভির বর্ষপূর্তি পালন
‘ভালো না লাগলে পদত্যাগ করুক’

‘ভালো না লাগলে পদত্যাগ করুক’

প্রবাসীর দিগন্ত ডেস্ক

মন্ত্রিসভার রদবদলে সিনিয়র মন্ত্রীরা সন্তোষ প্রকাশ করলেও অসন্তুষ্টি জানিয়েছেন তারানা হালিম। ডাক ও টেলিযোগাযোগ থেকে তথ্য মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হওয়া তারানা হালিম ইতিমধ্যেই কিছু বিরুপ মন্তব্য করেছেন। এমন মন্তব্যে তারানা হালিমের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন বলে জানা গেছে।

বুধবারই মন্ত্রিসভার বড় রদবদল হয়। আটটি মন্ত্রণালয়ে এই রদবদলে প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিমকে ডাক ও টেলিযোগাযোগ থেকে সরিয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ে নেওয়া হয়েছে। ওই দিনই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ একাধিক গণমাধ্যমে নিজের অসন্তুষ্টির কথা বলেন তারানা হালিম। তিনি মন্তব্য করেছেন, ‘আমাকে সরিয়ে দেওয়াটা মানুষ হিসেবে একটু লাগে। আমি তো ফেরেশতা নই, অন্য কিছুও নই; মানুষ। রক্তে-মাংসে গড়া।’

তারানা হালিমের মন্তব্যের কথা প্রধানমন্ত্রী জানতে পেরে অসন্তুষ্ট হয়েছেন বলেই জানিয়েছেন তাঁর ঘনিষ্ঠজনরা। প্রধানমন্ত্রী এ সময় বলেছেন, মন্ত্রিসভার রদবদলে সিনিয়ররা যেখানে সন্তুষ্ট সেখানে তাঁর এমন মন্তব্য সঠিক হয়নি। তাঁকে মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল। সে কীভাবে তা চালিয়েছে, তা সবাই জানে।

আওয়ামী লীগের একাধিক সিনিয়র নেতা বলেছেন, মন্ত্রিসভা রদবদল নিয়ে এ ধরনের মন্তব্য শিষ্টাচার বিরোধী।

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেছেন, মন্ত্রিসভায় রদবদল একটি স্বাভাবিক প্রক্রিয়া এবং দেশের প্রয়োজনেই তা করা হয়। কেউ যদি এতে অসন্তুষ্ঠ থাকে, কারও যদি ভালো না লাগে, তাহলে পদত্যাগ করতে পারে।

সংশ্লিষ্ট একাধিক দায়িত্বশীল ব্যক্তির মতে, গণতান্ত্রিক সরকারব্যবস্থায় মন্ত্রিসভার পরিবর্তন সম্পূর্ণ প্রধানমন্ত্রীর হাতে। মন্ত্রিসভায় পরিবর্তন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সিদ্ধান্তেই হয়েছে এবং দেশের প্রয়োজনই তিনি এমন পরিবর্তন এনেছেন।