সর্বশেষ সংবাদ

  1. ময়মিনসিংহ জাতীয়তাবাদী ফোরাম কর্তৃক জিয়াউর রহমান এর ৮২তম জন্মদিন পালন।
  2. গাড়ি পার্কিংয়ের জন্য অনুকরণীয় হতে পারে মালয়েশিয়া
  3. মালয়েশিয়াস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে ট্রাভেল পাস ইস্যুতে কড়াকড়ি! সক্রিয় দালালরা
  4. মালয়েশিয়ায় ওয়েসিস কলেজের সমাবর্তন অনুষ্ঠিত
  5. মালয়েশিয়া পেরাক রাজ্যের কান্তানে জিয়াউর রহমানের জন্ম বার্ষিকী পালিত
  6. মা-বাবা হারা এই শিশুদের পাশে থাকবে প্রবাসীরা
  7. চট্টগ্রামে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সম্মেলন সম্পন্ন
  8. রাজশাহীর মদীনাতুল উলুম মাদরাসা ছাত্রাবাসকে তিনতলায় উন্নীতকরণ
  9. দাগনভূইয়ায় স্বেচ্ছাসেবক লীগ সাংগঠনিক সম্পাদককে হত্যা
  10. মালয়েশিয়ায় এশিয়ান টিভির বর্ষপূর্তি পালন
মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭০ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত ছবিঃ প্রবাসীর দিগন্ত

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭০ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

মোহাম্মদ আবদুল কাদের, ব্যুরো চিফ, মালয়েশিয়া

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে এক আলোচনা সভার আয়োজন করেছে মালয়েশিয়া শাখা ছাত্রলীগ। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কুয়ালালামপুর বুকিত বিনতাংয়ের হোটল সলিলের বল রুমে কেক কাটা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

কুয়ালালামপুর মহানগর ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক বদরুল ইসলাম ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আসিবুল হাসনাত রাফির যৌথ পরিচালনায় সভায় সভাপতিত্ব করেন মালয়েশিয়া ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক রাসেল সিকদার।

মালয়েশিয়া আওয়ামীলীগের সংগ্রামি আহ্বায়ক রেজাউল করিম রেজা ও মালয়েশিয়া আওয়ামীলীগের প্রস্তাবিত কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব মকবুল হোসেন মকুলের সার্বিক সহযোগিতায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের উপ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক জামশেদ আহমদ।

সভায় বক্তব্য রাখেন, ছাত্রলীগ নেতা জহির রায়হান, লায়েক, বায়জিদ, জিসানুল ইসলাম আকাশ, আবুল কাশেম শাহিন, আরাফাত হোসেন আলিম, নির্জর, রাফি সাদাক।

এছাড়াও বক্তব্য রাখেন, কুয়ালালামপুর মহানগর ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রায়হান কবির খান, মালয়েশিয়া আওয়ামীলীগের সহসভাপতি আবদুল করিম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহীন সর্দার,  সাংগঠনিক সম্পাদক শাখাওয়াত হক জোসেফ, যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক আবু হানিফ, শ্রমিক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ জাকির হোসেন, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মার্শাল পাভেল, সানওয়ে ছাত্রলীগের আহ্বায়ক তারেকুল আলম চৌধুরীসহ আরো অনেকে।

 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জামশেদ আহমদ বলেন, আগামী নির্বাচনে নৌকাকে নির্বাচিত করতে মালয়েশিয়া ছাত্রলীগকে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে এবং বর্হিবিশ্বে ছাত্রলীগের কোন কমিটিতে যেন জামাত শিবির ও বিএনপির কেউ যেন প্রবেশ করতে না পারে সেদিকে কঠোর নজর দিতে হবে। এছাড়াও মালয়েশিয়া আওয়ামীলীগের সভাপতির বক্তব্যে বলেন, মালয়েশিয়া ছাত্রলীগকে আগামী নির্বাচনের জন্য এখন থেকে মাঠে নামার আহ্বান জানান। এসময় মালয়েশিয়া ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের সদস্য আক্তার উদ্দিন মাহমুদ পারভেজ  টেলি কনফারেন্সে কথা বলেন।

 

এদিকে, সভায় মালয়েশিয়া ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ বলেন, দেশের ঐতিহ্যবাহী ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ। বাংলার স্বাধীনতা ও বাঙালির স্বাধিকার অর্জনের লক্ষ্যে মূলদল আওয়ামী লীগের জন্মের এক বছর আগেই প্রতিষ্ঠা পেয়েছিল এই গৌরব ও ঐতিহ্যের ছাত্র সংগঠন। ১৯৪৮ সালের ৪ জানুয়ারি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সংগঠনটি প্রতিষ্ঠা করেন। তার নেতৃত্বেই ওই দিন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফজলুল হক হলে আনুষ্ঠানিকভাবে এর যাত্রা শুরু হয়।

এ প্রেক্ষাপটে ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠা বাঙালি জাতির ইতিহাসে বিশেষ তাত্পর্যপূর্ণ। বায়ান্নর ভাষা আন্দোলনে ছাত্রলীগের নেতৃত্বে ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে বুকের তাজা রক্তের বিনিময়ে বাঙালির ভাষার অধিকার প্রতিষ্ঠা, ৫৪র সাধারণ নির্বাচনে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ পরিশ্রমে যুক্তফ্রন্টের বিজয়, ৫৮র আইয়ুববিরোধী আন্দোলন, ৬২র শিক্ষা আন্দোলনে ছাত্রলীগের গৌরবোজ্জ্বল ভূমিকা, ৬৬র ৬ দফা নিয়ে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের দেশের প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ সারাদেশে ছড়িয়ে পড়া, ৬ দফাকে বাঙালি জাতির মুক্তির সনদ হিসাবে প্রতিষ্ঠা, ৬৯র গণঅভ্যুত্থানে ছাত্রলীগের নেতৃত্বে পাক শাসককে পদত্যাগে বাধ্য এবং বন্দীদশা থেকে বঙ্গবন্ধুকে মুক্ত করা, ৭০র নির্বাচনে ছাত্রলীগের অভূতপূর্ব ভূমিকা পালন, একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে সম্মুখসমরে ছাত্রলীগের অংশগ্রহণ, স্বাধীনতার পরবর্তী সামরিক শাসনের অবসান ঘটিয়ে গণতন্ত্রে উত্তরণসহ প্রতিটি আন্দোলন-সংগ্রামে ছাত্রলীগের অসামান্য অবদান দেশের ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে। ইতিহাসের বাঁকে বাঁকে বিভিন্ন পর্যায়ে নেতৃত্ব দেয়া এই সংগঠনের নেতাকর্মীরা পরে জাতীয় রাজনীতিতেও নেতৃত্ব দিয়েছেন এবং এখনও দিয়ে যাচ্ছেন। বর্তমান জাতীয় রাজনীতির অনেক শীর্ষ নেতারা রাজনীতিতে হাতেখড়িও হয়েছে ছাত্রলীগ থেকে।

এই সময় মালয়েশিয়ায় অবস্থানরত বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিপুল সংখ্যক ছাত্রলীগ নেতাকর্মী সভাস্থলে যোগ দেন। সবশেষে মালয়েশিয়া ছাত্রলীগ কেক কেটে রাতের খাবার বিতরণ করে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কর্মসূচি পালন করে।